রবিবার, ৫ ডিসেম্বর ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

`নগরীর রাস্তা ও ফুটপাত দখল করে কোন ধরণের ব্যবসা করা যাবেনা’-সিসিক মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী



নিউজ সর্বশেষ২৪রিপোর্ট: জনসাধারনের চলাচলের রাস্তা ও ফুটপাতে কোন ধরনের স্থাপনা তৈরী ও অবৈধ ব্যবসা করতে দেয়া হবে না বলে সাফ জানিয়ে দিয়ে সিসিক মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী বলেছেন, এক্ষেত্রে জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহনপূর্বক কাজ করছে সিসিক।

রোববার দিনব্যাপী নগরীর বন্দরবাজার, সুবহানীঘাট, শাহজালাল উপশহর ও মেন্দিবাগ এলাকায় অবৈধ গাড়ি স্ট্যান্ড, অবৈধ স্থাপনা ও ফুটপাত হকারমুক্ত অভিযান শেষে উপস্থিত সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন তিনি।

মেয়র আরো বলেন, নগরীর আনাচে-কানাচে জনসাধারণের চলাচলের রাস্তা বন্ধ করে গড়ে তোলা হয়েছে অবৈধ গাড়ি স্ট্যান্ড। এসব অবৈধ স্ট্যান্ড উচ্ছেদ করে নগরবাসীর চলাচলে শৃংখলা ফিরিয়ে আনার চেষ্টা চলছে। তিনি বলেন, ‘ ইতোমধ্যে দক্ষিণ সুরমার পারাইরচকে ট্রাক টার্মিনাল নির্মিত হয়েছে। সেখানে ট্রাক, পিকআপ, কাভার্টভ্যান অবস্থান করছে। তবে এখনো কিছু কিছু স্থানে রাস্তা দখল করে ট্রাক, পিকআপের অবৈধ স্ট্যান্ড রয়েছে, সেগুলোও উচ্ছেদ করা হচ্ছে। তিনি বলেন, পর্যাক্রমে নগরীর চৌহাট্টা, রিকাবীবাজার, সুবিদবাজার সহ সব স্থানেও অভিযান চালানো হবে।

পরিবহন মালিক ও শ্রমিক সংগঠনের নেতা-কর্মীদের পরিশ্রমের ফসল ট্রাক টার্মিনাল উল্লেখ করে মেয়র বলেন, অর্ধশত কোটি টাকা ব্যায়ে সিলেট কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল নির্মাণের কাজ চলছে। বাস টার্মিনালের কাজ শেষ হলে নগরীর পরিবেশ হবে স্মার্ট নগরী হিসেবে। অভিযানে নগরীর বন্দরবাজারে ফুটপাথ ও রাস্থা দখল করে অবৈধভাবে ব্যবসা পরিচালনা করায় অর্ধশতাধিক স্থাপনা গুড়িয়ে দেয়া হয়েছে। এছাড়া রাস্তার পাশে বিভিন্ন ধরণের পসরা সাজিয়ে ব্যবসা করায় বেশ কিছু মালামাল জব্দ করা হয়।

বিকেলে নগরীর সুবহানীঘাটে অবস্থিত কাঁচা বাজারের সামনে রাস্তা দখল করে অবৈধভাবে গড়ে তোলা পিকআপ স্ট্যান্ড গুড়িয়ে দেয়া হয়। পরে মেন্দীবাগ ও ল’কলেজের সামনের অবৈধ গাড়ি স্ট্যান্ডও গুড়িয়ে দিয়ে উন্মোক্ত করা হয় সুবহানীঘাট-চালিবন্দর রাস্তার।

অভিযানে সিলেট মেট্রাপলিটন পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) ফয়সল মাহমুদ, অতিরিক্ত উপ পুলিশ কমিশনার নিকূলিন চাকমা, সিসিকের প্রধান প্রকৌশলী নুর আজিজুর রহমান, ট্রাফিক ইন্সপেক্টর হাবিবুর রহমান সহ বিপূল সংখ্যক পুলিশ সদস্য ও সিসিকের অন্যান্ন কর্মকর্তা-কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।

  •