শনিবার, ১১ জুলাই ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ২৭ আষাঢ় ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

সিলেটে ৯টি বন্যপ্রাণীকে পিটিয়ে হত্যা, ১০ জনের বিরুদ্ধে মামলা



সিলেট প্রতিনিধি::
সিলেটের জৈন্তাপুরে দলবেঁধে জঙ্গলে ঢুকে নয়টি বন্যপ্রাণীকে পিটিয়ে হত্যার সঙ্গে জড়িত ১০ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছে সিলেটের বন বিভাগ। নিহত প্রাণীর মধ্যে ছয়টি শেয়াল, একটি বেজি, দুটি বড় বাঘডাশ রয়েছে।
শনিবার (৩০ মে) সন্ধ্যায় জৈন্তাপুর থানায় মামলাটি করেন সিলেট বন বিভাগের সারী রেঞ্জের বিট কর্মকর্তা সাদ উদ্দিন। মামলায় দুইজনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরও ৭-৮ জনকে আসামি করা হয়েছে।
মামলার বাদী বন কর্মকর্তা সাদ উদ্দিন বলেন, ‘পিটিয়ে প্রাণী হত্যার খবর পেয়ে শনিবার জৈন্তাপুরের ফতেহপুর ইউনিয়নের বালিপাড়া গ্রামে আমরা তদন্তে যাই। বন বিভাগ এবং বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগ, মৌলভীবাজারের কর্মকর্তারা ও থানাপুলিশ এ সময় উপস্থিত ছিলেন। তদন্তে ৯টি বন্যপ্রাণী হত্যার প্রমাণ মিলেছে। এর সঙ্গে জড়িত দুইজনকে শনাক্ত করা হয়েছে। এরা হলেন-বালিপাড়া গ্রামের যুবক আব্দুল হালিম (২৫) ও শাহারিয়ার আহমদ (২২)। তারা ১০-১১ জন যুবক মিলে শুক্রবার (২৯ মে) সকাল ১০টার দিকে ছয়টি শেয়াল, দুটি বাগডাশ ও একটি বেজি লাঠি ও বল্লম দিয়ে পিটিয়ে আঘাত করে হত্যা করেন। এসব প্রাণীর আনুমানিক মূল্য প্রায় পাঁচ লাখ টাকা। পরে প্রাণীগুলোর মৃতদেহ নদীতে ভাসিয়ে দেয়।
মামলা দায়েরের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জৈন্তাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শ্যামল বণিক। তিনি বলেন, মামলার আসামিদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় হবে।
গত শুক্রবার জৈন্তাপুর উপজেলার বালিপাড়া গ্রামের যুবক আব্দুল হালিম (২৫) ও শাহারিয়ার আহমদের (২২) নেতৃত্বে একদল যুবক প্রাণীগুলোকে পিটিয়ে হত্যা করলে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ও সচেতন মহলে ব্যাপক সমালোচনার সৃষ্টি হয়। সমালোচনার বিষয়টি নজরে আসে বন বিভাগেরও। পরে শনিবার এ ঘটনার তদন্ত করে থানায় মামলা করে বন বিভাগ।