রবিবার, ৫ ডিসেম্বর ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

ওসমানীনগর প্রেসক্লাবে অ্যাডভোকেট আনোয়ারের মতবিনিময়



ওসমানীনগর প্রতিনিধি:
সিলেট জেলা জাতীয়তাবাদী মুক্তিযোদ্ধা দলের আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট আনোয়ার হোসেন ওসমানীনগর উপজেলা প্রেসক্লাবের সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় করেছেন।শনিবার দুপুরে মতবিনিময়কালে তিনি বলেন, বর্তমান বাংলাদেশ কঠিন এক ক্রান্তিকাল অতিক্রম করছে। গণতান্ত্রিক দেশে সরকারের চেয়ে শক্তিশালী হয়ে ওঠছে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। প্রশাসনের চোখরাঙানি আর নজির বিহিন হয়রানির কারণে বিএনপি দলীয় কর্মসূচী সুষ্ঠুভাবে পালন করতে পারছে না। যা সুষ্ঠু গণতন্ত্র চর্চার অন্তরায়। বিগত দিন থেকে অব্যাহত সাজানো মামলায় দলীয় নেতাকর্মীকে প্রতিদিনই আদালতে দৌড়াতে হচ্ছে। আনোয়ার হোসেন বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা এম ইলিয়াস আলীর সন্ধান দাবি করে বলেন, ওসমানীনগর ও বিশ্বনাথে বিএনপি, যুবদল, ছাত্রদল ও অঙ্গ-সংগঠনগুলো অন্য যে কোন সময়ের চাইতে অনেক বেশি সুসংহত ও আন্দোলনমুখী। কিন্তু প্রশাসনিক হয়রানি ও সাজানো মামলার ভয়ে অনেকেই মাঠে নামতে পারছে না। শক্তিশালী বিরোধীদল না থাকার কারণে সরকার তার ইচ্ছেমতো রাষ্ট্র পরিচালনা করছে। সাধারণ মানুষের ভোটাধিকার কেড়ে নেওয়া হয়েছে। যা দেশের জন্য অশনী সংকেত।ওসমানীনগর উপজেলা বিএনপির অর্ন্তদ্বন্ধ ও কোন্দল প্রসঙ্গে তিনি বলেন, কিছু কিছু রাজনৈতিক নেতা রয়েছেন যাদের দ্বিচারিতার কারণে প্রতিটা দলেই আভ্যন্তরীন কোন্দল লেগেই থাকে। তবে রাজনৈতিক নেতাদের অবশ্যই দলীয় আদর্শ মেনে চলা উচিত। কতিপয় ব্যক্তিরা কোন্দলকে কেন্দ্র করে ব্যক্তিগতভাবে লাভবান হলেও দলের জন্য তা মারাত্মক ক্ষতিকর। এদের সামাজিক ও রাজনৈতিক ভাবে বয়কট করা উচিত। নিজেকে সিলেট-২ আসনে বিএনপি’র দলীয় প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করার বিষয়টি উল্লেখ করে তিনি বলেন, দলীয়ভাবে আমি টিকেট দাবি করবো। আশা করছি দল আমায় মূল্যায়ন করবে। ওসমানীনগরে বিএনপির দলীয় জনপ্রতিনিধিরা দলীয় নেতাকর্মী ও দলের কর্মসূচি থেকে দূরে রয়েছেন সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন,বিগত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সিলেট-২ আসনে বিএনপি জোটগতভাবে ভোট দিয়ে এমপি নির্বাচিত করেছিল।নির্বাচন পরবর্তী সময়ে ওই এমপি জোটের সিদ্ধান্ত মানেন নি। তিনি বিএনপি নেতাকর্মীদের মূল্যায়ন করেন নি এবং বিএনপি থেকে দূরে রয়েছেন। এখন তার আশেপাশে শুভাকাঙ্খীদের অভাব নেই। মতবিনিময়কালে উপস্থিত ছিলেন ওসমানীনগর উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম,বুরুঙ্গা ইউনিয়ন বিএনপির সাবেক সভাপতি সুলেমান আলী,তাজপুর ইউনিয়ন বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক শাইস্তা মিয়া, গোয়ালাবাজার ইউপি বিএনপি নেতা ছোরাব আলী, মো. আবুল কালাম, উপজেলা যুবদল নেতা লাল মিয়া, মিঠু মিয়া প্রমুখ।

  •