শুক্রবার, ২০ মে ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

দোয়ারায় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ থেকে রক্ষা পেল সুড়িগাঁও গ্রামবাসী



দোয়ারা বাজার প্রতিনিধি :
সুনামগঞ্জের দোয়ারা বাজার উপজেলার সুড়িগাঁও গ্রামের বাসিন্দারা পুলিশের হস্তক্ষেপে বড় ধরনের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ থেকে রক্ষা পেল।পুলিশ ও এলাকাবাসি সুত্রে জানা যায়,দোয়ারা বাজার উপজেলার লক্ষিপুর ইউনিয়নের সুড়িগাঁও মৌজার দাগ নং ৩৪১,খতিয়ান ৩৫০,৪৮৯,৪৯১ বর্নিত তফসিল ভূমিতে সুড়িগাঁও গ্রামের মাওলানা মোঃ খুরশেদ মিয়া গত ১৯ ফেব্রয়ারী ২০২১ইং তারিখে বিজ্ঞ জেলা অতিরিক্ত ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে ৩২ জনকে আসামী করে ভূমিতে অনাধিকার প্রবেশের অভিযোগ এনে মামলা দায়ের করেন।মামলার পেক্ষিতে আদালত ১৪৪ ধারা মোতাবেক উভয় পক্ষকে স্থিতিশীল রাখার জন্য দোয়ারা বাজার থানার অফিসার্স ইনচার্জকে নির্দেশ প্রদান করেন।
গত ২৫শে ফেব্রয়ারী দোয়ারা বাজার থানা পুলিশ শৃৎখলা বজায় রাখার জন্য উভয় পক্ষকে আদালতের নির্দেশের পরিপেক্ষিতে নোটিশ প্রদান করেন।
গত ২৫শে মার্চ আসামী পক্ষের সফর আলী গং দেশীয় অস্ত্র,সস্ত্রে সজ্জিত হয়ে তফশিল ভূমিতে জোড়পূর্বক দখল করার পায়তারা শুরু করেন।ফলে উভয় পক্ষের লোকজন মধ্যে উত্তেজনা ও রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশংকা দেখা দেয়।থানা পুলিশ ঘটনাস্থল গিয়ে পরিবেশ শান্ত রাখার চেষ্টা করেন।এ সময় রক্তক্ষয়ী সংর্ঘষের সম্ভবনা থাকায় ঘটনাস্থল থেকে আনোয়ার হোসেন(২৪) ও ফারুক আহমেদ(১৯)কে গ্রেফতার করায় পরিবেশ শান্ত হয়।গ্রেফতারের ফলে উভয় পক্ষের লোকজনের মধ্যে সম্ভাবনাময় রক্তক্ষয়ী সংর্ঘষ থেকে রক্ষা পান।
এ ব্যাপারে দোয়ারা বাজার থানার ওসি নাজির আলম জানান,তাৎক্ষনিক সংঘর্ষের খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল যায়। উত্তেজিত উভয় পক্ষের লোকদের সংঘর্ষ না জড়ানোর জন্য আহ্বান জানানো হয়।এ সময় পরিস্থিতি শান্ত করতে পুলিশ ১৫১ ধারায় ২ জনকে ঘটনাস্থল থেকে গ্রেফতার করে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরন করে।বর্তমানে পরিবেশ স্বাভাবিক রয়েছে।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সোনিয়া জানান, বিজ্ঞ আদালতের নির্দেশে উক্ত তফশিল বর্নিত জায়গাটি তদন্ত প্রক্রিয়াধীন।শীঘ্রই তদন্ত প্রতিবেদন আদালতে দাখিল করা হবে।

  •