রবিবার, ৫ ডিসেম্বর ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

বিশ্বনাথের আলোচিত হেফাজত নেতা মুফতি ফারুক গ্রেফতার




বিশ্বনাথ প্রতিনিধি ::::
হেফাজতে ইসলামের ডাকা হরতালের দিনে পিকেটিং’র জের ধরে বিশ্বনাথে উপজেলার রামপাশা ইউনিয়নের জমসেরপুর-ধলীপাড়া গ্রামবাসীর সংঘর্ষের ঘটনায় হামলা-ভাংচুরের অভিযোগে দায়েরকৃত মামলার প্রধান অভিযুক্ত আলোচিত হেফাজত নেতা মুফতি ফারুক আহমদকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মুফতি ফারুক আহমদ উপজেলার রামপাশা ইউনিয়নের জমশেরপুর গ্রামের মৃত জালাল উদ্দিনের পুত্র ও আমতৈল জামেয়া দারুসসুন্নাহ মাদ্রাসার মুহতামিম।
মঙ্গলবার (১৮ মে) সন্ধ্যার দিকে বিশ্বনাথ-ওসমানীনগর উপজেলার সীমান্তবর্তী এলাকা থেকে বিশ্বনাথ থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) রমা প্রসাদ চক্রবর্তী, এসআই নূর হোসেন ও আফতাবউজ্জামন রিগ্যানের নেতৃত্বে একদল পুলিশ এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে (ফারুক) গ্রেফতার করেন।  বুধবার তাকে আদালতে প্রেরণ করা হয়।
জানা গেছে, গত ২৮ মার্চ হেফাজতে ইসলামের ডাকা হরতালে পিকেটিং করার জের ধরে বিশ্বনাথের বৃহত্তর আমতৈলের জমসেরপুর ও ধলিপাড়া গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘটিত সংঘর্ষের ঘটনায় হামলা-ভাংচুরের অভিযোগে ধলিপাড়া গ্রামের হাজী আব্দুল মুতলিবের পুত্র নাজমুল ইসলাম শিপু বাদী হয়ে ৬২ জনের নাম উল্লেখ এবং আরো ২৫০ জনকে অজ্ঞানামা অভিযুক্ত করে থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলা নং ২৯ (তাং ২৯.০৪.২১ইং)। ওই মামলা দায়েরের পর থেকে মামলার প্রধান অভিযুক্ত মুফতি ফারুক আহমদ পলাতক ছিলেন। মঙ্গলবার (১৮ মে) সন্ধ্যার দিকে বিশ্বনাথ থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) রমা প্রসাদ চক্রবর্তী, এসআই নূর হোসেন ও আফতাবউজ্জামন রিগ্যান নেতৃত্বে একদল পুলিশ বিশ্বনাথ-ওসমানীনগর উপজেলার সীমান্তবর্তী এলাকায় অভিযান চালিয়ে মুফতি ফারুক আহদকে গ্রেফতার করেন।
মুফতি ফারুক আহমদকে গ্রেফতারের সত্যতা স্বীকার করেছেন বিশ্বনাথ থানার অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) গাজী আতাউর রহমান।

  •