বৃহস্পতিবার, ৬ মে ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ২৩ বৈশাখ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

ছাতকে এতিম শিশু ধর্ষণের শিকার



ছাতক প্রতিনিধি :::
ছাতকে তালতো ভাই কর্তৃক তের বছর বয়সী এক এতিম শিশু ধর্ষনের শিকার হয়েছে। প্রায় তিন মাস আগে ধর্ষনের শিকার হওয়া এ শিশুটি বর্তমানে অন্তঃস্বত্ত্বা অবস্থায় মানবেতর জীবন-যাপন করছে। এ ঘটনায় ধর্ষক সোলেমান আলী (৩০)কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বুধবার ভোরে সিলেট নগরীর হযরত শাহজালাল(রঃ) মাজার এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করেন ছাতক থানার এসআই ইয়াছিন মিয়া। লম্পট সোলেমান আলী উপজেলার দক্ষিণ খুরমা ইউনিয়নের জাতুয়া গ্রামের ক্বারী আপ্তাব আলীর পুত্র। ঘটনাটি ঘটেছে গত বছরের ৫ নভেম্বর গভীর রাতে ধর্ষক সোলেমান আলীর শয়ন কক্ষে। ধষের্নের ঘটনায় ধর্ষিতার ভাই বাদী হয়ে ২৫ জানুয়ারী ছাতক থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা(নং-২৮) দায়ের করেন। অভিযোগ থেকে জানা যায়, পিতৃ-মাতৃহীন ভিকটিম শিশু তার একমাত্র বড় ভাইয়ের সাথে পিতার বাড়িতেই বসবাস করে আসছে। ঘটনার কয়েকদিন আগে রাজমিস্ত্রীর কাজে যোগ দিতে বড় ভাই জগন্নাথপুর যাওয়ার সময় ভিকটিমকে জাতুয়া গ্রামের বোনের বাড়িতে রেখে যায়। ঘটনার রাতে বড় বোনের পাশে ঘুমিয়ে থাকা ভিকটিমকে উঠিয়ে নিয়ে জোরপূর্ব ধর্ষন করে লম্পট সোলেমান আলী। এর পর থেকে নানা প্রলোভন ও ভয়-ভীতি দেখিয়ে একাধিকবার ধর্ষন করে সে। এক পর্যায়ে ভিকটিম অন্তঃস্বত্ত্বা হয়ে পড়লে বিষয়টি জানা জানি হয়। এ ঘটনায় গ্রাম্য লোকজনের চাপে বিয়ের মাধ্যমে বিষয়টি নিস্পত্তির আশ্বাস দেয় সোলেমানের পরিবার। কিন্তু নানা অজুহাতে কালক্ষেপন করে এক পর্যায়ে বিয়ে করতে অসম্মতি জানায় সোলেমান। বর্তমানে ভিকটিম শিশুটি আগত সন্তান শরীওে বহন করে দ্বারে-দ্বারে ঘুরছে। ছাতক থানার ওসি শেখ নাজিম উদ্দিন মামলা ও গ্রেফতারের বিষয়টি স্বীকার করেছেন।

  •