রবিবার, ২০ জুন ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ৬ আষাঢ় ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

সিলেটে আসল গরু ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে গরু চুরির মামলা :  প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ




পূবের হাওয়া ডেস্ক :::
সাজানো মামলার হয়রানী থেকে নিজের স্বামীকে বাঁচাতে সিলেট মেট্টোপলিটন পুলিশ কমিশনার ও ডিআইজ বরাবর অভিযোগ দিয়েছেন সিলেট শহরতলীর শাহপরাণ থানার কল্লগ্রামের শহিদ আলীর স্ত্রী মোছা. শিলা আক্তার।
বুধবার বিকেলে সিলেট মেট্টোপলিটন পুলিশ কমিশনার ও ডিআইজ বরাবর পৃথক দুটি অভিযোগ দায়ের করেন তিনি।
অভিযোগে তিনি উল্লেখ করেন, তার স্বামী কল্লগ্রামের স্বামী সৈয়দ মো. আব্দুল হাসিমের ছেলে মো. শাহিদ আলী বংশগত গরু ব্যবসায়ী, তিনি সুনামের সাথে দীর্ঘদিন ধরে গরুর ব্যবসা করছেন । গত ১০/০৩/২০২১ইং শাহিদ আলী বৈধভাবে ক্রয়কৃত ৬টি গরু নিয়ে সকাল বেলা পিকআপ গাড়ীতে করে বের হন । কিছুক্ষণ পর গরুসহ পুলিশ সুরমা গেইট পুলিশ ফাঁড়িতে তার স্বামীকে নিয়ে যাওয়া হয়। খবর পেয়ে শিলা আক্তার তার ভাশুর ছিদ্দিকসহ পরিবারের লোকজন গিয়ে জানতে পারেন ৪টি চুরির গরু আলাউদ্দিন ও ফয়ছলের বাড়ি হতে পুলিশ ও জনতা উদ্ধার করে ফাঁড়িতে আনা হয়েছে। শাহিদ আলী কাছ থেকে জব্ধকৃত ৬টি গরুর বৈধ কাগজপত্র শিলা আক্তার পুলিশ ফাঁড়িতে জমা দেন।
কিন্তু বৈধ কাগজপত্র থাকার পরও শাহিদ আলীকে প্রধান আসামি করে চুরি হওয়া ৪ টি গরু দিয়ে ছাতক থানায় গ্রেফতার দেখিয়ে এবং যাদেরকে হাতে নাতে ধরা হয় তাদেরকে পলাতক দেখিয়ে একটি মামলা হয় । মামলা নং ১৩। শিলা আক্তারের ভাশুর সিদ্দিক আহমদের কাছ থেকে নগদ বিশ হাজার টাকা গ্রহণ করে ৬টি গরু ফেরত দেওয়া হয় । বর্তমানে ৬টি গরু শিলা আক্তারের বাড়িতে রয়েছে । এ ছাড়া হাট থেকে ক্রয়ের কাগজপত্র ফাঁড়িতে জমা রয়েছে, শাহিদ আলীকে গরু চুর সাজিয়ে গরুর সাথে ছবি উঠিয়ে ক্ষতিপয় সাংবাদিক আসল অপরাধিদেরকে ছেড়ে দিয়ে শাহিদ আলীকে চুর সাজিয়ে অনলাইনে কয়েকটি নিউজ প্রকাশ ও প্রচার করেন। যার জন্য শিলা আক্তারের পরিবার মারাত্মক ক্ষতির সম্মুখীন।
অভিযোগে শিলা আক্তার আরো উল্লেখ করেন, তার স্বামী দীর্ঘদিন থেকে গরুর ব্যবসা পরিচালনা করে আসছেন । তার স্বামী কখনও কোন অবৈধ ব্যবসার সাথে জড়িত ছিলেন না। এমনকি তার স্বামীর উপর কখনও কোন মামলা বা-এ ধরণের অভিযোগ কোন থানায় হয়নি ।
এলাকার স্থানীয় জনগণ শিলা আক্তারের স্বামীর চারিত্রিক বৈশিষ্ট সম্পর্কে অবগত রয়েছেন। যা সুষ্টু তদন্ত করলে পাওয়া যাবে । বর্তমানে শিলা আক্তারের স্বামীকে চুরির মামলায় ছাতক থানায় রিমান্ডের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে সুনামগঞ্জ আদালত হতে ১ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করা হয়েছে। শিলা আক্তারের অভিযোগ তার পরিবারের ব্যবসায়ী সুনাম ক্ষুন্ন করার জন্য ও তার স্বামীর ব্যবসায়ী সুনাম ধ্বংস করার জন্য পরিকল্পিতভাবে কোন একটি মহল হজরত শাহপরাণ (রহ.) থানাধীন সুরমা গেইট পুলিশ ফাঁড়ির ক্ষতিপয় পুলিশ সদস্যদের সঙ্গে আতাঁত করে আসল অপরাধীদের হাতে নাতে ধরে তাদেরকে অবৈধ লেনদেনের মাধ্যমে ছেড়ে দিয়ে, শিলা আক্তারের নিরপরাধ স্বামীকে প্রধান অপরাধী সাজিয়ে সম্পূর্ণ সাজানো মিথ্যার আশ্রয় নিয়ে মামলা দায়ের করা হয়। তিনি তার স্বামীর মুক্তির পাশাপাশি দোষি ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য প্রশাসনের উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

  •