মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

কমলগঞ্জে দলই চা বাগানে চা পাতা চয়ন শুরু



জয়নাল আবেদীন,কমলগঞ্জ :::
মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জের দলই চা বাগানে চা পাতা চয়নের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়েছে। ব্যক্তি মালিকানাধীন দলই বাগানে চা পাতা চয়নের উদ্বোধন করেন সিলেট টি কোম্পানী লিমিটেড এর এজিএমমো. খালিদ মঞ্জুর খান। বৃহস্পতিবার (১৮ মার্চ) সকাল সাড়ে ১০ টায় আনুষ্ঠানিকতা শেষে চা বাগানের ৫ নম্বর সেকশনে পাতা চয়নের উদ্বোধন করা হয়।

সিলেট টি কোম্পানী লিমিটেড এর অধীনস্থ দলই চা বাগানের ৫ নম্বর সেকশনে বাগান কর্তৃপক্ষ, চা বাগান শ্রমিক ও পঞ্চায়েত নেতৃবৃন্দের উপস্থিতিতে শ্রমিকরা পুজোর্চনাসহ আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করেন। এসময়ে সংক্ষিপ্ত আলোচনা পর্বে বক্তব্য রাখেন দলই চা বাগানের সহকারী ব্যবস্থাপক গোলাম জাকারিয়া, আব্দুর রউফ মৃদুল, মো. আব্দুল আহাদ, বাগানের হেডক্লার্ক আব্দুল কাদির, চা বাগান পঞ্চায়েত সম্পাদক সেতু রায়, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, বাগান পঞ্চায়েত নেতৃবৃন্দ ও নারী চা শ্রমিকরা।

পরে চা পাতা চয়নের মাধ্যমে মৌসুমের প্রথম পাতি উত্তোলন শুরু করেন নারী শ্রমিকরা। আলোচনা অনুষ্ঠানে বাগান কর্তৃপক্ষ ও শ্রমিকরা চায়ের আশাতীত উৎপাদনের আশা প্রকাশ করেন। পরে চা পাতা চয়নের উদ্বোধন করেন সিলেট টি কোম্পানী লিমিটেড এজিএম মো. খালিদ মঞ্জুর খান।

দলই চা বাগানের সেকশনে সেকশনে চা গাছে নতুন কুঁড়ি সবুজের শোভা বর্ধন করেছে। সতেজতায় হাসছে চা বাগান। বাগান কর্তৃপক্ষ ও চা শ্রমিকরাও চা পাতা উত্তোলনে অধীর আগ্রহে। সাধারণত ডিসেম্বরে মৌসুমের শেষে চা গাছ ছাটাই বা কলম এর পর নিয়মানুযায়ী দু’তিন মাস চা বাগানে চা পাতা উৎপাদন বন্ধ থাকে। ফলে চা কারখানাও অলস থাকতে হয়। সেচ সুবিধা ও বৃষ্টিপাতের কারনে নতুন কুঁড়ি গজানোর পর আনুষ্ঠানিকভাবে চা পাতা চয়নের মাধ্যমে শুরু হয় চায়ের উৎপাদন। এবছরও এর কোন ব্যতিক্রম ঘটেনি।

চা পাতা চয়ন উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সিলেট টি কোম্পানী লিমিটেড এর এজিএম খালিদ মঞ্জুর খান বলেন, দানবীর আলহাজ্ব রাগীব আলী নিজের কোন স্বার্থ ব্যতীত শ্রমিকদের স্বার্থেই দলই চা বাগান চালু রেখেছেন। তারই ধারাবাহিকতায় মৌসুমের প্রথম এবছর চা পাতা চয়নের উদ্বোধন করা হচ্ছে। শ্রমিকদের আন্তরিকতার মধ্যদিয়ে আশাতীত উৎপাদন সম্ভব হবে বলে তিনি দাবি করেন।

  •