শনিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

সিলেট জেলা ইট প্রস্তুতকারী মালিক গ্রুপের মতবিনিময়



সিলেট জেলা ইট প্রস্তুতকারী মালিক গ্রুপ উদ্যোগে ২৩ জুন বুধবার নগরীর একটি অভিজাত হোটেল জেলা প্রতিনিধিদের নিয়ে জরুরি মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।
সিলেট জেলা ইট প্রস্তুতকারী মালিক গ্রুপে’র হাজী মোঃ দিলওয়ার হোসেন’র সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ মকবুল হোসেন এর পরিচালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন সহসভাপতি আব্দুল আহাদ, সদস্য ফেরদৌস আহমদ, আজিজুর রহমান, মোঃ রুহুল আমিন, ইকবাল চৌধুরী,মর্তুজা আহমদ চৌধুরী, এম এ হান্নান, রাশেদ আহমদ চৌধুরী, হবিগঞ্জ জেলা ইট প্রস্তুতকারী মালিক সমিতি’র সভাপতি মাওলানা কতুব উদ্দিন, কাওছার আহমদ ও মতিউর রহমান, সুনামগঞ্জ জেলা ইট প্রস্তুতকারী মালিক সমিতি’র সভাপতি শামছুল হক ও উপদেষ্টা আব্দুল্লাহ খানসহ সিলেট বিভাগের ইট প্রস্তুতকারী মালিক সমিতি’র সকল জেলা প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।
শুরুতে পবিত্র কুরআন থেকে তেলাওয়াত করেন আব্দুল আহাদ।
মতবিনিময় সভায় বক্তারা বলেন, ইটভাটা থেকে সরকার টেক্স ভ্যাট আদায় করে যাচ্ছে। সরকারে বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মসূচিতে ইট দিয়ে সহায়তা করে আসছে। অথচ এই শিল্পকে বন্ধ করার জন্য একটি মহল পায়তারা চালাচ্ছে। ইট ভাটা বন্ধ হলে দেশের অসংখ্য মানুষ বেকার হয়ে পড়বে এবং সরকার রাজস্ব হারাবে। নদীর নাব্যতা ফিরে পেতে মাটি খনন জরুরি। ইটের ভাটার জন্য মাটি উত্তোলনের মাধ্যমে নদী নাব্যতা ফিরে পায়। বর্তমানে সারাদেশে ইটভাটাগুলো সমাতন পদ্ধতি পরির্বতন করে, জীরজাত পদ্ধতিতে ইট ভাটা চালু রয়েছে। এতে পরিবেশ দুষিত হচ্ছে না। বায়ুদূষণের বিষয়ে গত ৬ মার্চ ২০২১ সালে জাতীয় দৈনিক প্রথম আলো বলা হয়েছে, বায়ুদূষণের অর্ধেক দায় গাড়ি ধোঁয়া। মাত্র ১০% দায় ইটভাটার। বায়ু দূষণের বড় বড় উৎস্যগুলোকে আগে বন্ধ করতে হবে। বর্তমানে ইট ভারতে রপ্তানী হচ্ছে, এতে সরকার বিপুল পরিমাণ রাজস্ব আয় হচ্ছে। দেশের অর্থনীতিকে শক্তিশালী করতে ইট ভাটাগুলো গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে যাচ্ছে। তাই আত্মঘাত সিদ্ধান্ত নেয়া থেকে সরকারকে বিরত থাকার আহবান জানান। বিজ্ঞপ্তি

  •